February 9, 2023
Sunday, 30 October 2022 12:53

নবীগঞ্জে বিএনপির কাউন্সিলে এক প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিলের জন্য অপর দুই প্রার্থীর লিখিত অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি

দৈনিক নবীগঞ্জের ডাক 

আগামী ৯ই নভেম্বর নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কাউন্সিলে সভাপতি প্রার্থী সৈয়দ মতিউর রহমান পেয়ারা দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের বহিস্কার ছিলেন । এখন তার বহিস্কার আদেশ থাকার কারণে অপর ২ সভাপতি প্রার্থী মনোনয়ন বাতিলের জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর আবেদন দায়ের করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, সৈয়দ মতিউর রহমান (পেয়ারা) তৎকালীন সময়ে সভাপতি থাকা অবস্থায় বিগত ২০০১ ইং সালের অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষের প্রার্থী আলহাজ্ব শেখ সুজাত মিয়ার নির্বাচনী জন সভায় নবীগঞ্জ নতুন বাজার মোড়ে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জনতার উদ্দেশ্যে বক্তব্য পেশ করেন। তৎকালীন সভাপতি সৈয়দ মতিউর রহমান (পেয়ারা) সভাপতির দায়িত্বে  থাকালিন  অবস্থায় জন সভায় উপস্থিত হননি। এমনকি ২০০১ সনের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি এবং তার সহযোগিরা সরাসরি সমগ্র উপজেলায় ধানের শীষের বিরোদ্ধে কাজ করেন। যার ফলে ধানের শীষের প্রার্থী আলহাজ্ব শেখ সুজাত মিয়া অল্প ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন। জাতীয় নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে বিএনপি'র কেন্দ্রীয় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে দলীয় প্রার্থী এবং ধানের শীষের বিপক্ষে কাজ করেছেন মর্মে অভিযোগ সত্য প্রমানিত হওয়ায় ,বিএনপি'র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনায় সৈয়দ মতিউর রহমানসহ ৫ জনকে দলের সকল পদ-পদবী থেকে বহিষ্কার করা হয়। উল্লেখিত পেয়ারা গংরা নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কোন কাজ কর্মে ও দলীয় কর্মসূচিতে দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত অংশ গ্রহন করেন নি। এমনকি বিএনপি বিরোধী দলে যাওয়ার পরেও বিভিন্ন সময়ে কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে কোথাও অংশ গ্রহন করতে দেখা যাইনি। এমনকি জাতীয় সংসদ নির্বাচন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলের প্রার্থীর পক্ষে কোন কাজ করেন নি। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশ রয়েছে যে, যারা বিগত ১০ বছর দলীয় কোন কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন না তারা কোন কাউন্সিলে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। এরই প্রেক্ষিতে নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কাউন্সিলে সভাপতি প্রার্থী মতিউর রহমান পেয়ারা প্রার্থীতা বাতিলের জন্য অপর প্রার্থী আলহাজ্ব শেখ সুজাত মিয়া ও আলহাজ্ব আব্দুল মোক্তাদির চৌধুরী পৃথক ভাবে লিখিত অভিযোগ নিবার্চন কমিশনের কাছে করেছেন। এব্যপারে প্রধান নিবার্চন কমিশনার এডঃ মুদ্দত আলী বলেন আমরা অভিযোগ পেয়েছি কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দর সাথে আলাপ আলোচনা করে ১ই নভেম্বর এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে।

Login to post comments
  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular